বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে (এসডিজি) সহায়তা করার জন্য পদক্ষেপ নিচ্ছে এমন ব‌্যক্তিদের বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এ পুরস্কার দেয়।

বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ার বিল গেটস বলেন, ‘বিশ্বের সর্বত্র চলমান বৈষম্য কোভিড-১৯ পরিস্থিতিকে আরও খারাপ করে তুলেছে। তবে এ প্রতিকূলতার মধ্যেও যে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব, এ চার মহিয়সী নারী তা করে দেখিয়েছেন। তাঁদের স্বীকৃতি দিতে পেরে আমরা সম্মানিত বোধ করছি।’

বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের সিইও মার্ক স্যুজম্যান বলেন, ‘নারীরা কীভাবে উদ্ভাবনী উপায়ে আমাদের সমাজ এবং দেশগুলোর পুনর্গঠনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন, এ পুরস্কারের বিজয়ীরা তাঁর জ্বলন্ত উদাহরণ। আরও সুন্দর ও বৈষম্যহীন পৃথিবী গড়তে এবং বিশ্বব্যাপী মানসিক সহযোগিতা ও সংবেদনশীলতা বাড়াতে এবারের বিজয়ীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন। তাঁদের কাজ আমাদের জন্য অনুপ্রেরণা।’

গোলকিপার্স ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে ‘গোলকিপার্স গ্লোবাল গোল অ্যাওয়ার্ড’–এর জন্য আরও তিনজন বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

২০২১ গ্লোবাল গোলকিপার্স অ্যাওয়ার্ডের বিজয়ী হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে জাতিসংঘের নারী শাখার সাবেক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল এবং এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ফুমজিলে মলাম্বো নকুকাকে। বিশ্বব্যাপী টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ, বৈশ্বিক লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণে বলিষ্ঠ নেতৃত্ব প্রদান এবং নারীদের ওপর অতিমারির প্রভাব নিয়ে ক্রমাগত সচেষ্ট হওয়ার স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর মলাম্বো নকুকাকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

এ বছর অন্য দুটি পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে কলম্বিয়ার জেনিফার কলপাস ও লাইবেরিয়ার সাট্টা শেরিফকে। গ্লোবাল গোলসকে পূর্ণতা দিতে তাঁরা প্রতিটি স্থানীয় জনগোষ্ঠী নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এ সম্মান তাঁদের সেই কাজের স্বীকৃতি।

গত সপ্তাহে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের পঞ্চম বার্ষিক গোলকিপার্স প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গোলকিপার্স গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হল।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন