বিজ্ঞাপন

উপজেলা প্রশাসন ও চেয়ারম্যানের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেল চারটার দিকে চেয়ারম্যান মাঈনুল হক দাপ্তরিক কাজ শেষ করে কার্যালয়সংলগ্ন বাসভবনে ফেরেন। সন্ধ্যায় তাঁর গাড়িচালক ফোন করে জানান, কার্যালয়ে বসার কক্ষ থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে চেয়ারম্যান এসে দেখেন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘণ্টাখানেক চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে আগুনে গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র ছাড়াও প্রায় ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকার জিনিসপত্র পুড়ে গেছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাঈনুল হক বলেন, আগুনে দুটি এসি মেশিন, একটি ল্যাপটপ, একটি ট্যাব, একটি টিভি, সিসি ক্যামেরার ডিবি বক্সসহ মনিটর, চারটি দেয়াল ফ্যান, শতাধিক বই, একটি উন্নত মানের চেয়ার, কিছু দামি শোপিস, দুটি ডিজিটাল ঘড়ি, একটি ৬ এস প্লাস আইফোন ও ল্যান্ডফোন সেট পুড়ে গেছে। সম্প্রতি আট লাখ টাকা খরচ করে ইন্টেরিয়র ডিজাইনের কাজ করা হয়েছিল। আগুনে সেসব নষ্ট হয়ে গেছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন