default-image

শর্ত সাপেক্ষে আকাশপথে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। তবে অতি ঝুঁকিপূর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ ৩৮টি দেশে চলাচলের ক্ষেত্রে বিশেষ শর্ত দেওয়া হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাতে বেবিচক এ প্রজ্ঞাপন জারি করে। আজ শনিবার থেকে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে বলে বেবিচকের পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, এয়ার বাবল ফ্লাইটগুলো আপাতত স্থগিত থাকবে।
বেবিচক জানায়, বাংলাদেশে আসা ও দেশে থেকে যাওয়ার ক্ষেত্রে ১০ বছর বয়সের নিচে শিশুদের বাদে সব ভ্রমণকারীকে করোনার আরটিপিসিআর পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। ভ্রমণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এই পরীক্ষা করতে হবে। কূটনৈতিক ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের ক্ষেত্রে হোম বা প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন কেমন হবে, তা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নির্ধারণ করবে।

বেবিচক সদস্য (ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড অপারেশন) গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী এম জিয়াউল কবীর স্বাক্ষরিত ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত এ নির্দেশনা চলমান থাকবে।

বিজ্ঞাপন

১২ অতি ঝুঁকিপূর্ণ দেশে থেকে এলে যা করণীয়

আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, কোস্টারিকা, সাইপ্রাস, জর্জিয়া, ভারত, ইরান, মঙ্গোলিয়া, ওমান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও তিউনিসিয়া থেকে কেবল বাংলাদেশি প্রবাসী বা নাগরিকেরা আসতে পারবেন। তবে এর জন্য দূতাবাসের বিশেষ অনুমতি নিতে হবে।
বাংলাদেশ আসার পর ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। কোয়ারেন্টিনের জন্য সরকারের নির্ধারিত স্থান বা নিজ খরচে সরকারনির্ধারিত হোটেলে থাকতে হবে।

২৬ দেশ থেকে এলে যে নির্দেশনা

অস্ট্রিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, চিলি, ক্রোয়েশিয়া, এস্তোনিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রিস, হাঙ্গেরি, ইরাক, কুয়েত, ইতালি, লাটভিয়া, লিথুনিয়া, নেদারল্যান্ডস, প্যারাগুয়ে, পেরু, কাতার, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, তুরস্ক ও উরুগুয়ে থেকে যেকেউ বাংলাদেশে আসতে ও যেতে পারবেন। তবে বাংলাদেশে এলে ১৪ দিনে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন মানতে হবে। আর কাতার, বাহরাইন ও কুয়েত থেকে বাংলাদেশে আসা ব্যক্তিদের প্রথমে তিন দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এরপর করোনা পরীক্ষা শেষে ১১ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বেবিচক বলছে, এ দুই তালিকার বাইরে থাকা দেশ থেকে বাংলাদেশে আসা যাবে। তবে ভ্রমণকারীদের করোনা নেগেটিভ সনদ রাখা এবং ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এ ছাড়া যাত্রা শুরুর ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ সনদ নিতে হবে।

করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে গত ১৪ এপ্রিল থেকে আন্তর্জাতিক সব গন্তব্যে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে বেবিচক। পরে প্রবাসীদের কর্মস্থলে ফেরাতে আটটি দেশে শর্ত দিয়ে ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দেয় সংস্থাটি।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন