default-image

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ ডিবেটিং ক্লাবের (বিডিসি) জাতীয় পর্যায়ে ভার্চ্যুয়াল বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে গত শুক্রবার (৫ জুন) বেলা তিনটায়। ফাইনালে বিতর্কের বিষয় ছিল ‘অসুস্থ প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের মানোন্নয়ন ও মেধা বিকাশে বাধাগ্রস্ত করছে’। তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনালে বিজয়ী হয় গাজীপুর ডিবেটিং সোসাইটি।

সনাতনী ফরম্যাটের এ বিতর্ক প্রতিযোগিতাটি ১৯ মে শুরু হয়ে শেষ হয় ৫ জুন। ‘আলোকিত হই যুক্তিতে মানবতার মুক্তিতে’ স্লোগানে ভার্চ্যুয়াল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ফাইনালে অংশ নেয় রংপুর বিভাগের লালমনিরহাট জেলা থেকে ‘টিম অনির্বাণ’ ও ঢাকা বিভাগের গাজীপুর জেলা থেকে ‘গাজীপুর ডিবেটিং সোসাইটি’।

ফাইনালে বিষয়ের পক্ষে অবস্থান নেন লালমনিরহাটের অনির্বাণ দলের মায়াবী হাসান, রাইয়ান ইসলাম কাব্য ও শাহারিয়ার কবীর। বিপক্ষে ছিলেন গাজীপুর ডিবেটিং সোসাইটি দলের মো. ইউসুফ আলী, আবদুল্লাহ আল মারুফ ও মো. শিহাব ইসলাম তাহান।

ফাইনালের প্রধান অতিথি ছিলেন বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ইয়ামিন হোসেন ও প্রধান পর্যবেক্ষক ছিলেন ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির (ডিইউইডিএস) সাবেক সভাপতি ও দিনাজপুরের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর শামসুর রহমান পারভেজ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুরো বিশ্বের এমন পরিস্থিতিতে এমন ভার্চ্যুয়াল বিতর্ক প্রতিযোগিতার সাধুবাদ জানিয়ে ইউএনও বলেন, বিতর্কচর্চাই একজন ছাত্রকে পূর্ণাঙ্গ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে। বিতর্কচর্চার জন্য সব সময় প্রশাসনিকভাবে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

প্রধান পর্যবেক্ষক শামসুর রহমান পারভেজ এমন আয়োজন আরও করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বলেন, একদিন দেশের প্রত্যেক সংসদ সদস্যই বিতার্কিক হবেন, দেশকে সঠিক যুক্তির মাধ্যমে উন্নতির শিখরে পৌঁছে দেবেন।

ফাইনালে মডারেটর ছিলেন বেগম রোকেয়া কলেজের সহকারী অধ্যাপক লায়ন মো. আজহারুল ইসলাম দুলাল, বিচারক ছিলেন ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফরহাদুল ইসলাম বিপ্লব, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক সুব্রত কুমার প্রামাণিক, ন্যাশনাল ডিবেট ফেডারেশনের কো-চেয়ারম্যান তপন কুমার রায়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি জাহিদুল ইসলাম শিহাব, যুগ্ম সম্পাদক অনামিকা সান্যাল, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট ফোরামের সভাপতি তরিকুল ইসলাম পিয়াস ও সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস তমা।

প্রতিযোগিতার ফাইনালে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হন গাজীপুর ডিবেটিং সোসাইটি দলের দলনেতা শিহাব ইসলাম তাহান।

১৯ মে শুরু হওয়া জাতীয় পর্যায়ে আয়োজনের এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের ৫টি বিভাগের ১০টি দল অংশ নেয়। এ প্রতিযোগিতায় ৩০ জন বিতার্কিক ও দেশসেরা ২০ জন বিচারক অংশ নেন।

এ সময় ফাইনাল বিতর্কে যুক্ত থেকে বীরগঞ্জ ডিবেটিং ক্লাবের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিতর্কচর্চাকে অব্যাহত রাখতে সারা দেশে অনলাইনে বিতর্কের চর্চা ও দেশসেরা বিতার্কিকদের একই প্ল্যাটফর্মে আনার উদ্দেশ্য নিয়েই এ বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

বিতর্ক প্রতিযোগিতাটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেন বীরগঞ্জ ডিবেটিং ক্লাবের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস কে জাহিদ হাসান এবং তাঁর সহযোগী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন মেহেদী হাসান মুরাদ, আবদুল্লাহ আল মাহমুদ। বীরগঞ্জ ডিবেটিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা তাসমি বারীর পরামর্শে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা পরিচালিত হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন