বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চেক জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বাদী হয়ে গত অক্টোবরে মামলা করেন। ওই মামলার আসামিরা হলেন যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেন, সচিব এ এম এইচ আলী আর রেজা, হিসাব সহকারী আবদুস সালাম, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের মালিক শরিফুল ইসলাম এবং শাহী লাল স্টোরের মালিক আশরাফুল আলম।

এদিকে যশোর শিক্ষাবোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন, যশোর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. আহসান হাবীব। আর সচিব হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন রাজশাহীর শহীদ এ এইচ এম কামরুজ্জামান সরকারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. আবদুল খালেক সরকার।

অন্যদিকে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান মোহা. মোকবুল হোসেনকেও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়েছে। তাঁর জায়গায় একই বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক মো. হাবিবুর রহমান। এ ছাড়া দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন রাজশাহীর উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের পরিচালক মো. কামরুল ইসলাম। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আজ মঙ্গলবার পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন