বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে তৎকালীন আলবদর নেতা চৌধুরী মঈনুদ্দীনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন মানবতাবিরোধী আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ২০১৩ সালে এই রায় ঘোষিত হলেও চৌধুরী মঈনুদ্দীন এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় ৯ জন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ৬ সাংবাদিক ও ৩ চিকিৎসককে অপহরণ ও খুনের অপরাধ প্রমাণিত হওয়ার পর ট্রাইব্যুনাল ২০১৩ সালের নভেম্বরে মঈনুদ্দীনের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেওয়া আশরাফুজ্জামান খানকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে যুক্তরাজ্যকে অব্যাহতভাবে যুক্ত থাকার আহ্বান জানান। এ সময় তারেক আহমেদ রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধানে মিয়ানমারের নিপীড়িত জনগোষ্ঠীর পাশে থাকার আশ্বাস দেন। তিনি রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের বিষয়ে জাতিসংঘের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সাইবার নিরাপত্তা ও ধর্মীয় সহিষ্ণুতার চ্যালেঞ্জ নিয়েও আলোচনা করেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন