টানা ৬৯ দিন পর রাজশাহী থেকে রাজবাড়ী ও খুলনার মধ্যে আজ বুধবার (০৩ জুন) থেকে আবার ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। ট্রেন দুটি হচ্ছে কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ও মধুমতি এক্সপ্রেস। এর মধ্যে কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস খুলনা-রাজশাহীর মধ্যে এবং মধুমতি এক্সপ্রেস রাজশাহী-রাজবাড়ীর মধ্যে চলাচল করে। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বন্ধ থাকার পর এ দুটি ট্রেন যাত্রা শুরু করেছে।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক আবদুল করিম জানান, ভোর ছয়টায় কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনটি খুলনা থেকে ছেড়ে রাজশাহী পৌঁছেছে ১১টা ৫০ মিনিটে। প্রতিদিন বেলা সোয়া দুইটায় ট্রেনটি আবার রাজশাহী থেকে খুলনার উদ্দেশে যাত্রা করে। এরপর রাত আটটার দিকে ট্রেনটি খুলনায় পৌঁছায়।

অন্যদিকে সকাল আটটায় মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাজশাহী থেকে ছেড়েছে। বেলা একটায় ট্রেনটি রাজবাড়ী পৌঁছায়। এরপর বেলা তিনটায় সেটি আবারও রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে আসে। রাজশাহী এসে পৌঁছাবে রাত আটটায়। আগের এমন সূচি অনুযায়ীই ট্রেন দুটি নিজ নিজ রুটে চলাচল করবে।

এর আগে গত ৩১ মে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের চারটি ট্রেন চলাচল শুরু করেছে। এগুলো হলো বনলতা এক্সপ্রেস (চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকা), লালমনি এক্সপ্রেস (লালমনিরহাট-ঢাকা), চিত্রা এক্সপ্রেস (খুলনা-ঢাকা) এবং পঞ্চগড় এক্সপ্রেস (পঞ্চগড়-ঢাকা)। প্রতিটি ট্রেনে অর্ধেক আসনে যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। শতভাগ টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে অনলাইনে। কাউন্টার থেকে কোনো টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে না।

গত ২৫ মার্চ থেকে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সব রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে জীবাণুনাশক কক্ষের মধ্য দিয়ে প্রবেশ, হাত স্যানিটাইজেশন, নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ ১৯ দফা নির্দেশনা দিয়ে যাত্রীদের ট্রেনে ওঠানো হচ্ছে। যাত্রার আগে ওয়াশপিটে পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি জীবাণুমুক্ত করা হয় ট্রেনের ভেতর ও বাইরে। ট্রেনের মধ্যে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য একটি সিট ফাঁকা রেখে আরেকটি সিটে বসতে দেওয়া হয় যাত্রীদের।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0