বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আইএসপিআর জানায়, ১৭ সেপ্টেম্বর লেবাননের বৈরুতে পদক প্রদান অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে লেবানিজ নৌবাহিনীর কমান্ডার ইন চিফ ক্যাপ্টেন কমোডর হাইসাম ড্যাননোই, লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনী সদর দপ্তরের প্রতিনিধি কমোডর সৈয়দ মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

এ অনুষ্ঠানে এমটিএফ কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আন্দ্রেস মুগে শান্তিরক্ষা মিশন লেবাননে নিয়োজিত নৌবাহিনীর সব সদস্যকে সফলভাবে মিশন কর্মকাণ্ড সম্পাদনের জন্য ধন্যবাদ জানান। এ ছাড়া তিনি নৌ সদস্যদের নিরলস পরিশ্রমের মাধ্যমে বিশ্ব শান্তি কার্যক্রমে সার্থক এবং নিবেদিতভাবে অবদান রাখার জন্য সাধুবাদ জানান। বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯–এর প্রাদুর্ভাবের কারণে সবাইকে বিশেষ স্বাস্থ্যসচেতনতা বজায় রেখে দায়িত্ব পালনে উদ্বুদ্ধ করেন তিনি।

২০১০ সাল থেকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণ করে আসছে। ভূমধ্যসাগরে মাল্টিন্যাশনাল মেরিটাইম টাস্কফোর্সের সদস্য হিসেবে উপমহাদেশের মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় নিয়োজিত রয়েছে। বর্তমানে নিয়োজিত সংগ্রাম যুদ্ধজাহাজ লেবাননের ভূখণ্ডে অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ অনুপ্রবেশ প্রতিহত করতে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে চলেছে। পাশাপাশি লেবানিজ জলসীমায় মেরিটাইম ইন্টারডিকশন অপারেশন পরিচালনা, সন্দেহজনক জাহাজ ও উড়োজাহাজের ওপর নজরদারি, দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজে উদ্ধার তৎপরতা এবং লেবানিজ নৌবাহিনীর সদস্যদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন