বিজ্ঞাপন

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এ ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত যাতে হয়, সে জন্য তিনি প্রথম থেকেই সচেষ্ট ছিলেন। এখনো সচেষ্ট আছেন। বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সচেষ্ট থাকবেন। তদন্তের মাধ্যমে সত্যটা বেরিয়ে আসবে। রোজিনা ইসলামের সঙ্গে অন্যায় আচরণ হয়ে থাকলে সেটিও তদন্তে বেরিয়ে আসবে। আর তাঁর সঙ্গে যদি কোনো অন্যায় আচরণ হয়ে থাকে, তাহলে সেটি অবশ্যই গ্রহণযোগ্য নয়, নিন্দনীয়।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, অবাধ তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে। একই সঙ্গে সবাইকে আইনও মেনে চলতে হবে। সাংবাদিক নেতাদের মধ্যে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সাংবাদিক নেতা মনজুরুল আহসান বুলবুল, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান প্রমুখ। এ সময় ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারসহ আরও একাধিক সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সাংবাদিক নেতারা আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের সঙ্গে তাঁর বাসায় সাক্ষাৎ করেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন