default-image

বিদায়ী বছরে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৬ হাজার ৬৮৬ জন। আহত হয়েছেন ৮ হাজার ৬০০ জন। সড়ক দুর্ঘটনার বড় কারণ বেপরোয়া গতি। বেশির ভাগ দুর্ঘটনাই গাড়ি চাপা দেওয়ার ঘটনা।
এ ছাড়া রেলপথে দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৩১৮ জন ও নৌ দুর্ঘটনায় ৩১৩ জন, অর্থাৎ সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৭ হাজার ৩১৭ জন। বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির বার্ষিক সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়।

আজ শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবেদন প্রকাশ করেন সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী। দেশের জাতীয়, আঞ্চলিক ও অনলাইন সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন তৈরি করে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।


সড়কে ১৫৯৪ পথচারী নিহত

সংগঠনটি বলছে, ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে মোটরসাইকেলে সড়ক দুর্ঘটনা ৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ বেড়েছে। প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, গত বছর সারা দেশে ৪ হাজার ৮৯১টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে নিহত হন ৬ হাজার ৬৮৬ জন। তাঁদের মধ্যে চালকের সংখ্যা ২ হাজার ৩৯ জন, ১ হাজার ৫৯৪ জন পথচারী, ৭৫৭ জন পরিবহনশ্রমিক, ৭০৬ জন ছাত্রছাত্রী, ১০৪ জন শিক্ষক, ২০০ জন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, ৯১৮ জন নারী, ৫৪১ জন শিশু, ২৯ জন সাংবাদিক, ২৭ জন চিকিৎসক, ৮ জন আইনজীবী ও ৫ জন প্রকৌশলী। এ ছাড়া ১৪৪ জন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীও নিহত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

৫৩ শতাংশ দুর্ঘটনাই গাড়িচাপার

দুর্ঘটনার তথ্য পর্যালোচনা করে সংগঠনটি বলছে, গত বছর যত সড়ক দুর্ঘটনা হয়েছে, এর মধ্যে ৫২ দশমিক ৯৬ শতাংশ গাড়িচাপা দেওয়ার ঘটনা। এ ছাড়া ২২ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ১৭ শতাংশ যানবাহন খাদে পড়ে দুর্ঘটনাকবলিত।
দুর্ঘটনার ধরন সম্পর্কে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি বলছে, দেশে সড়ক দুর্ঘটনার প্রায় ২৯ শতাংশ জাতীয় মহাসড়কে, ৪৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ আঞ্চলিক মহাসড়কে সংগঠিত হয়েছে।

দুর্ঘটনার বড় কারণ বেপরোয়া গতি

দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে বলা হয়, দেশে সড়ক দুর্ঘটনার বড় কারণ বেপরোয়া গতি। গাড়ি চালানোর সময় চালকেরা মুঠোফোনে কথা বলেছেন। অনেক চালক মাদক সেবন করে গাড়ি চালান।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সড়ক পরিবহন আইন কঠোরভাবে প্রয়োগের আহ্বান জানান সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, মহাসড়কের উভয় পাশে ১০ মিটার খালি রাখার বিধান বাস্তবায়ন করতে হবে।

এর আগে ২০২০ সালের সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে ৬ জানুয়ারি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন নিরাপদ সড়ক চাইয়ের (নিসচা) চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন। সংগঠনটির প্রতিবেদনের তথ্য বলছে, গেল বছর সড়ক, রেল ও নৌপথে সড়ক দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে ৪ হাজার ৯২টি। মারা গেছেন ৪ হাজার ৯৬৯ জন এবং আহত হন ৫ হাজার ৮৫ জন।


এ ছাড়া রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদন বলছে, ২০২০ সালে মোট সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৪ হাজার ৭৩৫টি। এতে মারা গেছেন ৫ হাজার ৪৩১ জন। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণহানি বেড়েছে ৫০ শতাংশের বেশি।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন