default-image

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলী সেতুর রেলিংয়ে বসে মুঠোফোনে গান শুনছিলেন কলেজছাত্র বিনয় কুমার রায়। কার গান শুনছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে মুঠোফোন বন্ধ করে নিজে গাইতে শুরু করলেন ওই তরুণ, ‘দুচোখে ঘুম আসে না তোমাকে দেখার পরে’। এরপর বললেন, ‘বেবী নাজনীনের গাওয়া গান। গানটি খুব পছন্দের।’
কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন একাদশ সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) আসনে বিএনপির একক প্রার্থী। দলের পক্ষে সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র ও সাবেক সাংসদ মো. আমজাদ হোসেন সরকারও মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। কিন্তু যাচাই–বাছাইয়ে তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।
এ আসনের বর্তমান সাংসদ জাতীয় পার্টির শওকত চৌধুরী। একাদশ সংসদ নির্বাচনে তাঁকে ছাড়াও আহসান আদেলুর রহমানকে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তিনি দলের চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের ভাগনে। দুজনকে মনোনয়ন দেওয়ায় এরই মধ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শওকত চৌধুরী।
মনোনয়নপত্র বৈধ হওয়ার পর বেবী নাজনীনকে নিয়ে গ্রামগঞ্জে শুরু হয়েছে হরেক আলোচনা। তাঁর গান বাজছে হোটেল রেস্তোরাঁগুলোতে। কেউ কেউ ইউটিউব থেকে ঘন ঘন ডাউনলোড করছেন বেবী নাজনীনের নতুন–পুরোনো গানগুলো।
‘ঘুম ভাঙ্গায়া গেলরে মরার কোকিলে’—বেবী নাজনীনের এ গানটি জনপ্রিয়তা পেয়েছিল একসময়। গতকাল বুধবার বিকেলে ওই গানটি শোনা গেল সৈয়দপুর উপজেলার চৌমুহনী বাজারে। সিডি প্লেয়ারে গানটি বাজছিল। আর এতে কণ্ঠ মেলাচ্ছিলেন কয়েকজন তরুণ। ওই এলাকার ব্যবসায়ী মাজেদুল ইসলাম জানান, ‘বেবী নাজনীন আমাদের সৈয়দপুরের সন্তান। তিনি আমাদের গর্ব। অসংখ্য চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অনেক পুরস্কার পেয়েছেন। এমপি পদে তাঁকে বিজয়ী করতে চাই।’
বেবী নাজনীনের চাচাতো ভাই সৈয়দপুর শহরের সরকারপাড়ার বাসিন্দা মনোয়ার সরকার পেশায় ব্যবসায়ী। মনোয়ার বলেন, বেবী নাজনীন নিজের যোগ্যতায় দেশের অন্যতম বড় দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহসম্পাদক হয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশে–বিদেশে জনমত গড়ছেন। তাঁর দাবি, সব দলের লোকের ভোট পাবেন বেবী নাজনীন।
সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম ওবায়দুর রহমান জানান, ‘বেবী নাজনীন নতুন প্রজন্মের ক্রেজ। আমরা তাঁর বিজয়ের সম্ভাবনা দেখছি।’
আলাপকালে বেবী নাজনীন বললেন, ‘আমার বিশ্বাস, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্যই সৈয়দপুর–কিশোরগঞ্জবাসী আমাকে নির্বাচিত করবেন।’
তবে এ আসনে জাতীয় পার্টির সম্ভাব্য প্রার্থী আহসান আদেলুর রহমান আলাপকালে বেবী নাজনীনের প্রার্থিতা সম্পর্কে বলেন, ‘বেবী নাজনীন জনপ্রিয় শিল্পী। তবে গান আর রাজনীতি এককথা নয়। তবু তাঁকে স্বাগত।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0