বৈঠকে জানানো হয়, গত অক্টোবর মাসে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৮ জন খুন, ২৫ জন অপহৃত, ২১ জন পাচার ও ৬ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ছাড়া তিনটি ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ওই মাসে ১৬২ জনের বিরুদ্ধে ৫১টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার মধ্যে মাদক মামলায় ৩০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালতের ৩৪টি অভিযানে ৮৬টি মামলা দায়ের করে ১ লাখ ২৯ হাজার ৪০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করা হয়েছে এবং ৫০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এপিবিএনের তিনটি ব্যাটালিয়ন কাজ করছে।

বৈঠক শেষে সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে বজ্রপাত থেকে কৃষকদের রক্ষা করার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি কী ধরনের রক্ষামূলক ব্যবস্থা নেওয়া যায়, সে জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগে সৃষ্ট যেকোনো জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় মন্ত্রণালয়কে রিজার্ভ ফান্ড রাখার সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মো. আফতাব উদ্দিন সরকার, মীর মোস্তাক আহমেদ, জুয়েল আরেং এবং মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী অংশ নেন।