পূর্ণাঙ্গ আয়রনম্যান প্রতিযোগিতায় প্রতিযোগীদের জন্য থাকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ৩ দশমিক ৮ কিলোমিটার সাঁতার, ১৮০ কিলোমিটার সাইক্লিং এবং ৪২ দশমিক ২ কিলোমিটার দৌড় সম্পন্ন করার চ্যালেঞ্জ। ৭০.৩ আয়রনম্যানকে বলা হয় অর্ধদূরত্বের আয়রনম্যান। সাঁতার, সাইক্লিং ও দৌড়—তিনটি বিষয়ে অর্ধেক দূরত্ব পেরোনোর চ্যালেঞ্জ থাকে আয়রনম্যান ৭০.৩ ইভেন্টে।

বিভিন্ন দেশে হওয়া আয়রনম্যান প্রতিযোগিতায় চ্যালেঞ্জ সম্পন্ন করা ট্রায়াথলেটদের মধ্য থেকে বাছাই করে তাঁদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় আয়রনম্যানের সর্বোচ্চ আসর আয়রনম্যান ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপ।

প্রথম বাংলাদেশি ট্রায়াথলেট হিসেবে মোহাম্মদ সামছুজ্জামান আরাফাত গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত আয়রনম্যান ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়েছিলেন এবং চ্যালেঞ্জ সম্পন্ন করেছিলেন। আগামীকাল তিনি আয়রনম্যান মালয়েশিয়ায় অংশ নিতে যাচ্ছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে আরাফাত হোয়াটসঅ্যাপে প্রথম আলোকে বলেন, ‘এবার প্রস্তুতি ভালো হয়েছে। আশা করি, ভালো ফল করতে পারব। নিজের নতুন রেকর্ড করার আশাও করি।’ এবার অষ্টমবারের মতো আয়রনম্যানের আসরে অংশ নিচ্ছেন আরাফাত।

পেশাগত জীবনে মোহাম্মদ সামছুজ্জামান আরাফাত বাংলাদেশ ব্যাংকের উপপরিচালক। তিনি ছাড়া আরও সাত বাংলাদেশি ট্রায়াথলেট আয়রনম্যান মালয়েশিয়ায় অংশ নিচ্ছেন।

তাঁদের প্রস্তুতিও ভালো হয়েছে। এই সাতজন হলেন সফটওয়্যার উদ্যোক্তা ইমতিয়াজ ইলাহী, সফটওয়্যার নির্মাতা মুনতাসীর সামি, ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার মিশু বিশ্বাস, গণপূর্ত অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী পবিত্র কুমার দাশ, সিটি ব্যাংক লিমিটেডের কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ, জনতা ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফুর রহমান ও বাংলালিংকের সফটওয়্যার প্রকৌশলী শুভ দে।

এই সাতজনের মধ্যে ইমতিয়াজ ইলাহী ও মুনতাসীর সামি এর আগে পূর্ণ দূরত্বের আয়রনম্যান চ্যালেঞ্জ সম্পন্ন করেছেন। মিশু বিশ্বাস তুরস্কে অনুষ্ঠিত অর্ধদূরত্বের আয়রনম্যান ৭০.৩ সম্পন্ন করেছেন।

অর্ধদূরত্বের আয়রনম্যান ৭০.৩ লংকাউইতে অংশ নিচ্ছেন তিন বাংলাদেশি। তাঁরা হলেন বারডেম জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক সাকলায়েন রাসেল, গণপূর্ত অধিদপ্তরের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী অর্ণব বিশ্বাস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইশতিয়াক উদ্দিন।

আয়রনম্যান মালয়েশিয়া প্রতিযোগিতায় মোহাম্মদ শামছুজ্জামান আরাফাতকে সহযোগিতা করছে প্রথম আলো। কালকের আয়রনম্যান প্রতিযোগিতা সরাসরি দেখা যাবে আয়রনম্যান অ্যাপ বা ওয়েবসাইট থেকে।