আজ বিকেলে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই দুই দিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন। বিকেল পাঁচটার পর তাঁকে বহনকারী উড়োজাহাজটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। সেখানে তাঁকে স্বাগত জানান কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন।

default-image

সফরের দ্বিতীয় দিনে আগামীকাল রোববার সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর প্রাতরাশ বৈঠক হবে। ওই বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়ের পাশাপাশি তাইওয়ানকে ঘিরে চীন–মার্কিন উত্তেজনা, রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব এবং চলমান ভূরাজনীতির মতো প্রসঙ্গগুলো আলোচনায় আসবে।

বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনায় দ্বিপক্ষীয় বিষয়ের পাশাপাশি চীনের দিক থেকে ভূরাজনীতি ও কৌশলগত সহযোগিতার বিষয়গুলোতে নজর থাকতে পারে। আর বাংলাদেশের দিক থেকে বাণিজ্য বৃদ্ধি, প্রকল্পের দ্রুত বাস্তবায়ন ও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের মতো বিষয়গুলোতে গুরুত্ব দেওয়া হবে।

তবে ঢাকার কর্মকর্তারা মনে করেন, বাংলাদেশ এখন কোভিড-১৯–পরবর্তী পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ, রাশিয়া-ইউক্রেন সংকট মোকাবিলার মতো বিষয়গুলো নিয়ে বেশি ব্যস্ত। এর ফলে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে জিডিআই, জিএসআইয়ের মতো বিষয়গুলো এলেও বিভিন্ন পরাশক্তির মধ্যে যে বিষয়গুলোতে বৈরিতা চলছে, তাতে যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের তেমন একটা আগ্রহ নেই।

default-image

বাংলাদেশ বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে খাদ্য ও জ্বালানি সহযোগিতার বিষয়ে একসঙ্গে কাজ করার বিষয়টি আলোচনায় তুলবে। দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনা শেষে পাঁচটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সইয়ের জন্য চূড়ান্ত করা হয়েছে।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। এরপরই তিনি ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

জানা গেছে, দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকের পর সইয়ের জন্য যে পাঁচটি চুক্তি ও সমঝোতা চূড়ান্ত হয়েছে, সেগুলো হচ্ছে পিরোজপুরে অষ্টম বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ সেতুর হস্তান্তর সনদ, দুর্যোগ মোকাবিলা সহায়তার জন্য পাঁচ বছর মেয়াদি সমঝোতা স্মারকের নবায়ন, ২০২২-২৭ মেয়াদে সাংস্কৃতিক সহযোগিতা সমঝোতা স্মারকের নবায়ন, দুই দেশের মধ্যে টেলিভিশন অনুষ্ঠান বিনিময় সহযোগিতা সমঝোতা স্মারক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চীনের ফার্স্ট ইনস্টিটিউট অব ওশেনোগ্রাফির মধ্যে মেরিন সায়েন্স নিয়ে সমঝোতা স্মারক।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন