ওই মামলায় গত ২৮ জুলাই হাইকোর্ট সাহেদের নিয়মিত জামিন মঞ্জুর করে রায় দেন। এর বিরুদ্ধে দুদক আপিল বিভাগে আবেদন করে, যা আজ চেম্বার আদালতে শুনানির জন্য ওঠে।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। সাহেদের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী গোলাম আব্বাস চৌধুরী ও মোহাম্মদ মাসুদ উল হক।

পরে আইনজীবী খুরশীদ আলম খান প্রথম আলোকে বলেন, সাহেদের জামিন মঞ্জুর করে হাইকোর্টের দেওয়া রায় ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। সেদিন আবেদনটি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠানো হয়েছে।

২০২০ সালের ৬ জুলাই উত্তরায় রিজেন্টের হাসপাতালে অভিযান চালায় র‍্যাব। হাসপাতাল থেকে জব্দ করা হয় ভুয়া করোনা রিপোর্ট। পরদিন র‍্যাব বাদী হয়ে উত্তরা-পশ্চিম থানায় মামলা করে। একই বছরের ১৫ জুলাই সাহেদকে সাতক্ষীরা থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। আর ২০১৫ সালে ফারমার্স ব্যাংকের ২ কোটি ৭১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে একই বছরের ২৭ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ, ফারমার্স ব্যাংকের নিরীক্ষা কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতিসহ চারজনের বিরুদ্ধে ওই মামলা করে দুদক।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন