ব্র্যাক বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ্ স্বাক্ষরিত এক অভ্যন্তরীণ পরিপত্রে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এ উদ্যোগ সংস্থার সব কার্যক্রম পরিবেশবান্ধব করার মাধ্যমে কার্বন ফুটপ্রিন্ট কমানোর ধারাবাহিক প্রচেষ্টার অংশ। ব্র্যাকের সব কার্যালয় ও কার্যক্রমে কার্বন নিঃসরণ যথাসম্ভব কমাতে ইতিমধ্যে কৌশল ও কাঠামোগত লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ লক্ষ্য অর্জনে জাতীয় ও মাঠপর্যায়ে একবার ব্যবহারযোগ্য প্রচারসামগ্রী ও প্লাস্টিকের অন্যান্য উপকরণের ব্যবহার বন্ধ করা হবে।

পিভিসি ব্যানারের পরিবর্তে কাপড় বা অন্যান্য পরিবেশবান্ধব উপকরণে তৈরি ব্যানার ব্যবহার করা হবে। নিজেদের সব অনুষ্ঠানে একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের বোতল, ব্যাগ, চামচ, স্ট্রসহ পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর সব ধরনের প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহার বন্ধ করবে ব্র্যাক। এ ছাড়া পরিবেশসম্মত উপকরণ ব্যবহার নিশ্চিত করার পাশাপাশি অপ্রয়োজনীয় যেকোনো উপকরণের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে নিবিড় তদারকি ব্যবস্থাও কার্যকর করা হয়েছে।

ক্ষতিকর প্লাস্টিক পণ্য নিষিদ্ধ করতে ২০১৯ সালের ১ নভেম্বর প্রথম উদ্যোগ কার্যকর করেছিল ব্র্যাক। এর আওতায় ব্র্যাক কার্যালয়ে একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিকের বোতল ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়।