জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ কাতার সেনাবাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করবেন। এ ছাড়া কাতার সশস্ত্র বাহিনীর আমন্ত্রিত দর্শক হিসাবে তিনি বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখবেন। এ সফরে বাংলাদেশ সরকারের কোনো আর্থিক সংশ্লেষ নেই।

সেনাপ্রধানের উদ্যোগে গত এক বছরে বাংলাদেশ ও কাতার সেনাবাহিনীর বিদ্যমান সম্পর্কের অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে। গতমাসে কাতার সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে বাংলাদেশের সামরিক সহযোগিতা বিষয়ক একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। আগামী ২৭ নভেম্বর দেশে ফিরবেন সেনাপ্রধান।