default-image

‘মানবতার জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসা’ স্লোগানে এই চিকিৎসাশিবিরে অংশ নিচ্ছেন চার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। তাঁরা মেডিসিন, হৃদ্‌রোগ, প্রসূতি, দন্ত, ডায়াবেটিস, বাতব্যথা, অ্যাজমা, শিশুরোগসহ নানা বিষয়ে সেবা দিচ্ছেন।

সকালে চিকিৎসা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন হাসপাতালটির বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ওয়ালী উল্লাহ জামান, রোমানা বেগম, মোহাম্মদ শাহীন, ফয়সাল আহমেদ ও হাসপাতালের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শাহাজান সিরাজ।

উপস্থিত ছিলেন এসকেএফের ডেপুটি সেলস ম্যানেজার মো. কামরুল আলম, ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি ও এসকেএফের সিনিয়র ডেপুটি ম্যানেজার মো. ওয়াহিদুজ্জামান, ফিল্ড ম্যানেজার মো. আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

উদ্বোধনীতে চিকিৎসক ওয়ালী উল্লাহ জামান বলেন, ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশন সারা দেশে যেসব কাজ করে যাচ্ছে, তা সত্যিই প্রশংসাযোগ্য। এতে মানুষ সরাসরি উপকৃত হচ্ছে। ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বিনা মূল্যে ওষুধ ও চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। অনেক মানুষ টাকার অভাবে চিকিৎসকের কাছে যেতে পারে না। তাদের জন্য এ উদ্যোগ আনন্দের। আর ফারাজ সাহসের প্রতীক। তিনি ছিলেন সাহসী তরুণ। এই আয়োজনের জন্য ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশন ও এসকেএফকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

default-image

রোগীরা খুশি
চেমনা খাতুন থাকেন নগরের শান্তিনগর এলাকায়। বয়স ষাটের কাছাকাছি। টেনেটুনে সংসার চলে। আলাদাভাবে চিকিৎসার ব্যয় বহনের সামর্থ্য পরিবারের নেই। গত কয়েক দিন শান্তিনগর এলাকায় বিনা মূল্যে চিকিৎসাসেবা দেওয়ার বিষয়ে মাইকিং করা হয়। এ ঘোষণা শুনে আজ সকালে হাসপাতালে আসেন চেমনা খাতুন।

চেমনা খাতুন প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর ডায়াবেটিস আছে। শরীরে ব্যথা। আছে দুর্বলতাও। কিন্তু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার সামর্থ্য তাঁর নেই। তাই বিনা মূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ পাওয়ার কথা শুনে এখানে এসেছেন।

default-image

নগরের মুরাদপুর এলাকার মাদ্রাসাশিক্ষার্থী শফিকুল ইসলাম (২৫)। তাঁর মাথাব্যথা আছে। আছে শারীরিক দুর্বলতা। বিনা মূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ পেয়ে তিনি খুশি।

শফিকুল প্রথম আলোকে বলেন, এমন উদ্যোগ আরও বেশি বেশি নেওয়া উচিত। এতে সাধারণ মানুষের সরাসরি উপকার হয়। কারণ, অনেকেরই চিকিৎসা ব্যয় বহন করার সামর্থ্য নেই।

ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি ও এসকেএফের সিনিয়র ডেপুটি ম্যানেজার মো. ওয়াহিদুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, চিকিৎসাসেবার বিষয়ে আগেই মাইকিং করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এ কারণে সকাল থেকেই রোগীরা শিবিরের আসতে শুরু করে। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী রোগীদের বিনা মূল্যে বিভিন্ন ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে ইতিমধ্যে এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে।

হাসপাতালের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শাহাজান সিরাজ বলেন, ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশন এমন উদ্যোগে সহযোগী হতে পারা আনন্দের বিষয়। এমন উদ্যোগ মানুষের উপকারে আসছে। অনেকেই দূরদূরান্ত থেকে চিকিৎসাসেবা নিতে আসছে। তারা ওষুধ নিয়ে ঘরে ফিরছে। এমন উদ্যোগে ভবিষ্যতেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পাশে থাকবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন