অনুদানের এই অর্থ আইসিডিডিআরবি মহাখালী হাসপাতালের এনডাউমেন্ট ফান্ডে দেওয়া হবে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি মুহম্মদ আজিজ খান, তাঁর স্ত্রী আঞ্জুমান আজিজ খান ও মেয়ে আজিজা আজিজ খান মহাখালীর আইসিডিডিআরবি হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এ সময় তাঁরা হাসপাতালে বিপুলসংখ্যক ডায়রিয়া রোগীর জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসাসেবা দেখে অভিভূত হন।

আইসিডিডিআরবির নির্বাহী পরিচালক তাহমিদ আহমেদ বলেন, হাসপাতালটি বর্তমানে রেকর্ডসংখ্যক রোগীকে বিনা খরচে চিকিৎসা প্রদান করছে; যা ষাটের দশকে প্রতিষ্ঠার পর থেকে সর্বোচ্চ। তিনি জানান, চলমান বৈশ্বিক আর্থিক অস্থিরতা আইসিডিডিআরবির দুটি হাসপাতাল পরিচালনায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। সে কারণে একটি টেকসই ব্যবস্থা অপরিহার্য।

এর পরিপ্রেক্ষিতে মুহাম্মদ আজিজ খান ১০ লাখ ডলার অনুদানের প্রতিশ্রুতি দেন। কোনো স্থানীয় ব্যক্তির পক্ষ থেকে আইসিডিডিআরবিতে এটি এযাবৎকালে সর্ববৃহৎ ব্যক্তিগত অনুদানের অঙ্গীকার।

অনুদানের অঙ্গীকার করায় মুহম্মদ আজিজ খান, তাঁর স্ত্রীসহ সামিট করপোরেশনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আইসিডিডিআরবির নির্বাহী পরিচালক তাহমিদ আহমেদ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন