default-image

ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীদের করোনা নমুনা পরীক্ষা করার জন্য আর অন্য হাসপাতালে যেতে হবে না। তাঁরা মহাখালীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে নমুনা দিতে পারবেন। আজ সোমবার এই হাসপাতালে নমুনা সংগ্রহের কাজ শুরু হয়েছে।

জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক কাজী মোশতাক হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা শুরু থেকে দেখে আসছিলাম, করোনায় আক্রান্ত রোগীরা করোনার নমুনা পরীক্ষা করাতে গিয়ে অনেক সমস্যায় পড়ছিলেন, অনেকে হয়রানির শিকার হচ্ছিলেন। রোগীদের এমন অবস্থা থেকে দেখে আমরা করোনার নমুনা পরীক্ষার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে অনুমতি চেয়েছিলাম। করোনার নমুনা সংগ্রহের অনুমতি পাওয়ার পর আমাদের হাসপাতালে বুথ স্থাপন করেছি। আজ থেকে নমুনা সংগ্রহের কাজ শুরু হয়েছে।’

কাজী মোশতাক হোসেন জানান, শুধু ক্যানসার হাসপাতালে যাঁরা চিকিৎসা করাতে আসবেন, তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এই নমুনাগুলো সংগ্রহের পর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব প্রিভেনটিভ অ্যান্ড সোশ্যাল মেডিসিনে (নিপসম) পাঠানো হবে। তারা পরীক্ষা করে রিপোর্ট দেবে।

ঢাকার সিভিল সার্জন চিকিৎসক আবু হোসেন মো. মঈনুল আহসান প্রথম আলোকে বলেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীরা ঢাকায় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে এসে করোনার পরীক্ষা করাতে অন্য হাসপাতালে গিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছিলেন। এ ব্যাপারে গণমাধ্যমে প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছে। ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীরা যাতে সহজে করোনার নমুনা দিতে পারেন, সে জন্য পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কথা বলেন। অবশেষে ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীরা সহজে করোনার নমুনা দিতে পারবেন, ক্যানসার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বুথ স্থাপন করে কাজ শুরু করেছে।

জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক কাজী মোশতাক হোসেন বলেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে তাঁর প্রতিষ্ঠানের একজন চিকিৎসক মারা গেছেন। তাঁর প্রতিষ্ঠানের চিকিৎসকসহ ৩৮ জন করোনায় আক্রান্ত হন। এর মধ্যে চিকিৎসক ২৬ জন। ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়েই তাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন