বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে শ্রাবণ পরিবহনের একটি বাস প্রথমে গুলিস্তানসংলগ্ন কাপ্তান বাজারের সামনে পুলিশ কনস্টেবল নাসিরউদ্দিনকে ধাক্কা দিলে তিনি আহত হন। এরপর চালক ও তাঁর সহকারী বাসটি ফেলে পালিয়ে যান। তখন বাসটি রাস্তায় পড়ে থাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সময় এএসআই এমাদুল হক নিজেই বাসটি চালিয়ে অন্য স্থানে সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। বাসটি আহাদ পুলিশ বক্সের কাছে এলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক বিভাজকের ওপর উঠে যায়। এতে বাসের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন চারজন পথচারী। তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক শুকুর মাহমুদ (বাবুল) ও রাইসুল কবির (তুষার) নামে দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।

পারিবারিক সূত্র জানায়, শুকুর মাহমুদ যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী, আর রাইসুল কবির একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন।

শুকুর মাহমুদ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা ভুইগড়ে থাকলেও তাঁর গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দির রাঙা শিমুলিয়া গ্রামে। তিনি আড়াই মাস আগে বাংলাদেশে ফেরেন। আর রাইসুল কবিরের বাড়ি রাজধানীর জুরাইনের খন্দকার রোডে।

শুকুর মাহমুদ ঢাকায় কাজ শেষে নারায়ণগঞ্জে ফেরার জন্য রাস্তা পার হচ্ছিলেন, আর রাইসুল দাপ্তরিক কাজ শেষে পল্টনে তাঁর কর্মস্থলে ফিরছিলেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন