বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। নিহত ব্যক্তির বড় ভাই আবদুস সালাম বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। মামলায় নাজমাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

থানা সূত্রে জানা যায়, নিহত ব্যক্তির বাড়ি নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার কচুয়াকান্দা গ্রামে। রহমান দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে গোড়ান এলাকার ৯ নম্বর রোডের মদিনা মসজিদ গলিতে ভাড়া থাকতেন।

খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুকুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, ‘সকালে হাসপাতাল থেকে থানায় ফোন আসে যে একজনের লাশ রেখে পালিয়ে গেছে স্বজনেরা। ফোন পেয়ে হাসপাতালে যায় পুলিশ। হাসপাতালের খাতায় শুকুর নামের এক স্বজনের মুঠোফোন নম্বর পাই। পরে ওই নম্বরের সূত্র ধরে নিহতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে পুরো ঘটনা জানতে পারি।’

ওসি বলেন, আটকের পর নাজমা স্বামীকে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। নিহত রহমান খিলগাঁও এলাকায় মুরগির ভ্যান চালাতেন।

খিলগাঁও থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সফিকুল ইসলাম লাশের সুরতহাল রিপোর্টে উল্লেখ করেন, বুকের বাঁ পাশে স্টিলের ব্যাডমিন্টনের ভাঙা ব্যাটের আঘাতে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন