নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, নিজেরা করির প্রধান নির্বাহী খুশী কবির, স্থপতি ইকবাল হাবীব এবং উদীচী বাংলাদেশের সঙ্গীতা ইমামের থাকার কথা রয়েছে। স্থপতি ও নগরবিশেষজ্ঞ মোবাশ্বের হোসেনেরও এ বৈঠকে থাকার কথা।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘বাচ্চাদের এ মাঠ পুলিশের নামে বরাদ্দ দেওয়া ও সেখানে স্থাপনা নির্মাণ করা দেশের প্রচলিত আইনের লঙ্ঘন। আমরা এ অবস্থান থেকে সরব না। আন্দোলন এবং আলোচনা একই সঙ্গে চলবে।’

রাজধানীর পান্থপথের উল্টো দিকের গলির পাশে একটি খোলা জায়গা রয়েছে। এটি তেঁতুলতলা মাঠ হিসেবে পরিচিত। স্থানীয় শিশুরা সেখানে খেলাধুলা করে। পাশাপাশি মাঠটিতে ঈদের নামাজ, জানাজাসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান হয়। এই মাঠে কলাবাগান থানার স্থায়ী ভবন নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গত জানুয়ারি মাসে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর থেকেই এর প্রতিবাদ করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। মাঠটি রক্ষার দাবিতে এলাকাবাসী গত ৪ ফেব্রুয়ারি পান্থপথের কনকর্ড টাওয়ারের সামনে মানববন্ধন করেন। ‘কলাবাগান এলাকাবাসী’র ব্যানারে আয়োজিত ওই কর্মসূচিতে স্থানীয় শিশু-কিশোর ও স্থানীয় বাসিন্দারা অংশ নেন। এতে মানববন্ধনের সংগঠকদের অন্যতম ছিলেন সৈয়দা রত্না।

এর প্রতিবাদ করায় গত রোববার ওই এলাকার বাসিন্দা সৈয়দা রত্না ও তাঁর কলেজপড়ুয়া ছেলেকে ধরে নিয়ে প্রায় ১৩ ঘণ্টা থানায় আটকে রেখে মধ্যরাতে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি শিশুদের খেলার মাঠে থানা ভবন নির্মাণ বন্ধের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন মানবাধিকারকর্মীসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন