বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা আহসান মঞ্জিলের সামনে ঘাট ও জেটি বানিয়ে সরকারি সংস্থা বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) অস্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে বলেও অভিযোগ করেন দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ তাপস। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আহসান মঞ্জিল একটি ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা। অথচ এর সামনে কীভাবে দখল অবস্থায় রয়েছে? বিআইডব্লিউটিএ সেখানে বিভিন্ন জেটি এবং বিভিন্ন ঘাট বানিয়ে সেখানে একটি অস্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।’

এ ছাড়া ঐতিহ্যবাহী আরেক স্থাপনা রূপলাল হাউস দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার করে তা সংরক্ষণের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেন, ঐতিহাসিক এ স্থাপনা দক্ষিণ সিটির কাছে হস্তান্তর করার জন্য ইতিমধ্যে ঢাকা জেলা প্রশাসন ও গণপূর্তকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পেলে এটি সংরক্ষণ করা হবে।

এ দুই ঐতিহ্যবাহী স্থাপনার বিষয়ে দক্ষিণের মেয়র বলেন, ‘ঐতিহ্য উপভোগ এবং সংরক্ষণ করার কোনো সুযোগ দেখছি না। তারপরও চেষ্টা করব, যাতে আমরা এ ঐতিহ্যকে পুনরুদ্ধার করতে পারি। সংরক্ষণ করতে পারি এবং দেশবাসী ও বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পারি।’

এ সময় মশক পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেন মেয়র। তিনি বলেন, পাঁচ দিন ধরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রতিদিন ২০–এর ঘরে রোগী থাকছে। সুতরাং দক্ষিণ সিটিতে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

এর আগে মৎস্য ভবন মোড়ে পথচারী পারাপার সেতু, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্বর্তীকালীন বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্র (এসটিএস), ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইসলামবাগ আধুনিক নগর মার্কেটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০২১ উপলক্ষে ধানমন্ডি লেকসংলগ্ন জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

মেয়র এ পরিদর্শনে অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা-৭ আসনের সাংসদ হাজি মোহাম্মদ সেলিম, দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহম্মদ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার, দক্ষিণ সিটির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর সিতওয়াত নাঈম, সচিব আকরামুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন