বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এটা নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী। তিনি আজ মঙ্গলবার প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংখ্যা বেড়েছে, ক্যাম্পাস ছোট হয়ে গেছে। নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে শিক্ষার্থীরা প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে, নিজেরা পথে নেমে যাচ্ছে। ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা যদি নিরাপদে হাঁটতে-চলতে না পারে এবং শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ না থাকে, তাহলে জাতির বড় ক্ষতি হবে—এই জায়গায় আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি। নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিতের জন্যই আমরা কাজ করছি।’

প্রক্টর বলেন, ‘বহিরাগত ব্যক্তিরা প্রয়োজনে ক্যাম্পাসে অবশ্যই আসবেন, সাবেক শিক্ষার্থীরাও ছুটির দিনে বা প্রয়োজনে আসবেন। কিন্তু বিনা প্রয়োজনে বহিরাগত ব্যক্তিদের ক্যাম্পাসে না আসতে আমরা অনুরোধ করছি। ক্যাম্পাসকে পার্ক বা বিনোদনকেন্দ্রের মতো ব্যবহার করা যাবে না। শিক্ষার পরিবেশ সমুন্নত রাখতে আমরা সবার সহযোগিতা চাই। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস আড্ডার জায়গা নয়, আড্ডার জায়গা হলো পার্ক, রেস্তোরাঁ ও কফি হাউজ।’

ক্যাম্পাসে গত তিন দিনের অভিযানে কয়েক ডজন গাড়ির মালিককে জরিমানা করা হয়েছে বলে জানালেন প্রক্টর। এ ছাড়া ক্যাম্পাসের সড়কে ভারী যানবাহনের চলাচল ও বহিরাগত নিয়ন্ত্রণে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম এবং পুলিশের সহযোগিতায় শিক্ষার্থীদের একটি অংশও নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে। ক্যাম্পাসের টিএসসি এলাকার পাশে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ফটকের সামনের ভাসমান দোকানগুলোও উচ্ছেদ করা হয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন