ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন জানান, রাসেলের শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।
গতকাল বুধবার সকাল পৌনে সাতটায় বেঙ্গল মিটের কর্মী ইমরান হোসেন (২৫) মারা যান। তাঁর শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়। আর আজ সকালে মারা যান ভ্যানচালক নূর নবী। এ নিয়ে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১১ জন নিহত হলেন।

ঠাকুরগাঁওয়ের একটি সরকারি কলেজে রাসেল স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর চাচা মো. বজলুর রহমান হাসপাতালে গতকাল প্রথম আলোকে বলেছিলেন, রাসেলের বাবা কৃষক। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি বড়। কলেজ বন্ধ থাকায় তিনি বসে না থেকে নিজে উপার্জনের আশায় ছয় মাস আগে ঢাকায় আসেন। বিস্ফোরণের পাঁচ দিন আগে বেঙ্গল মিটে চাকরি নিয়েছিলেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে রাখা হয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন