বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে সকাল সাড়ে নয়টায় আলী কবিরের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয় ইস্কাটনের সচিব কোয়ার্টারে, দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ১০টায় মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে, তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ১১টায় সচিবালয়ে।
জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব মো. তালহা প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, আলী কবিরের ইচ্ছা অনুযায়ী তাঁর মা–বাবার কবরের পাশেই তাঁকে সমাহিত করা হয়েছে।

সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত জানাজায় বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের সচিব ছাড়াও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন।
গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে মারা যান আলী কবির। হৃদ্‌রোগসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি।

সরকারি চাকরি থেকে অবসরের আগে জনপ্রশাসন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন আলী কবির। নদী রক্ষা কমিশনে নিয়োগ পাওয়ার আগে তিনি এক দশকের বেশি সময় ধরে অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ক্রীড়াঙ্গনে অবদানের জন্য ২০১৬ সালে তিনি জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পান। আলী কবির স্ত্রী ও দুই কন্যা রেখে গেছেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন