উন্নত বিশ্বে সৃজনশীল অর্থনীতি বর্তমানে একটি গুরুত্বপূর্ণ শিল্প খাত হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। বাংলাদেশে এই শিল্প খাতের সম্ভাবনাকে বিবেচনায় রেখে দেশের তরুণদের সৃজনশীল পেশায় উদ্বুদ্ধ করতে নতুন প্ল্যাটফর্ম ‘মেধা’র যাত্রা শুরু হলো বৃহস্পতিবার।

ফ্যাশন ডিজাইনার এমদাদ হকের ভাবনার বাস্তবায়ন এই মেধা। ‘আমরাও পারি’ স্লোগানে মেধা আগামী ছয় বছরে এক লাখ স্বাপ্নিক অনুসন্ধানের পরিকল্পনা নিয়েছে। কেবল খুঁজে বের করা নয়, বরং এদের পাশে থাকবে মেধা। ১৬ বা তদূর্ধ্বই হবে মেধার টার্গেট গ্রুপ। তাঁদের সৃজনভাবনার বাস্তবায়নে পরামর্শ থেকে যোগাযোগ স্থাপন, বিনিয়োগকারী সন্ধানসহ সব ধরনের সহায়তা করবে মেধা। হয়ে উঠবে তাঁদের আস্থার স্থল।

default-image

মেধার প্রতিষ্ঠাতা ফ্যাশন ডিজাইনার এমদাদ হক বলেন, মেধা একটি সৃজনশীল উদ্যোগ এবং অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। তাঁর দীর্ঘ অভিজ্ঞতাই মেধার চালিকা শক্তি হিসেবে কাজ করছে। তিনি বিশ্বাস করেন, সম্ভবনাময় মেধাবীরাই হবে মেধার প্রাণ। তাঁদের ভাবনার বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সৃজনশীল শিল্প খাত প্রাণ পাবে এবং দেশের অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। মেধাবীদের সন্ধানে সারা দেশে কাজ করবে মেধার স্বেচ্ছাসেবকেরা। এমনকি দেশের বাইরেও থাকবে মেধার দূত।

বৃহস্পতিবার গুলশানের সিটি আলো প্রাঙ্গণে মেধার আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা, যাঁদের বেশির ভাগই সম্পৃক্ত সৃজনশীল পেশার সঙ্গে।

default-image

আমলা থেকে চিত্রশিল্পী, সাহিত্যিক থেকে সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ, খেলোয়াড় থেকে সাংবাদিক, উদ্যোক্তা থেকে নাট্যশিল্পী—সবার উপস্থিতিতে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে অনুষ্ঠানস্থল। কিছুটা অনানুষ্ঠানিকভাবে চলা অনুষ্ঠানে কথা বলেন অনেকেই। তাঁদের বক্তব্যে মেধার জন্য শুভাশীষ জানানোর পাশাপাশি অনেক স্মৃতিময় বিষয় উঠে আসে। ইতিহাসের টুকরো টুকরো উপাদান মেলে এসব বক্তব্যে। কেউ কেউ যেমন মেধাকে নিয়ে স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন, তেমনি চিত্রশিল্পীরা ক্যানভাস ভরে তোলেন তুলির টানে, বর্ণের বিন্যাসে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0