বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাপ) সংস্থার প্রচার সম্পাদক বাবু গাজী বলেন, ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে লঞ্চমালিকেরা গতকাল দুপুর থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন। আজও কোনো লঞ্চ চলছে না। তবে যে লঞ্চগুলো ঢাকায় এসেছে, সেগুলো কর্মসূচি ঘোষণার আগেই ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল। এ কারণে সেগুলো গন্তব্যে এসেছে।

নৌ ব্যবস্থাপনা ও ট্রাফিক বিভাগের ঢাকা নদীবন্দরের যুগ্ম পরিচালক জয়নাল আবেদীন বলেন, উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আজ বেলা ৩টায় লঞ্চমালিক সমিতি ও বিআইডব্লিউটিএর বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। সদরঘাট টার্মিনাল এলাকায় কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর রয়েছে।

বাসমালিকদের ‘কায়দায়’ গতকাল দুপুর থেকে ধর্মঘট পালন শুরু করেন লঞ্চমালিকেরা। বাসমালিকেরা যেমন ধর্মঘটের আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দেননি, তেমনি লঞ্চমালিকেরাও কেন্দ্রীয়ভাবে ঘোষণা ছাড়া গতকাল দুপুরের পর ঢাকার সদরঘাট টার্মিনাল থেকে লঞ্চ মাঝনদীতে নিয়ে রেখে দেন।

এর আগে গতকাল দুপুরে সদরঘাটে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌচলাচল সংস্থার কার্যালয়ে সাধারণ লঞ্চমালিকদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে সংগঠনের সভাপতি মাহাবুব উদ্দিন আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, চিঠি দিয়ে পরিষ্কারভাবে বলা হয়েছিল ভাড়া বাড়াতে।

এ বিষয়ে কোনো আশ্বাসও আসেনি। এ অবস্থায় মালিকেরা বলে দিয়েছেন, কেউই লঞ্চ চালাতে পারবেন না।

মালিকদের এই অঘোষিত ধর্মঘটে ব্যাপক দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। গতকাল বিকেলে শত শত যাত্রী সদরঘাটে গিয়ে দেখেন, লঞ্চ চলছে না।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন