default-image

বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতারা বলেছেন, হামলা হতে পারে আঁচ করে সুনামগঞ্জের শাল্লার গ্রামবাসী পুলিশকে জানালেও, পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। শাল্লায় হিন্দুপল্লিতে সাম্প্রদায়িক হামলায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা জড়িত এমন প্রমাণও মিলেছে। সরকার কোনোভাবেই এর দায় এড়াতে পারে না। সাম্প্রদায়িক হামলার দায় সরকারকে নিতে হবে।

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আজ শনিবার দুপুরে বাম গণতান্ত্রিক জোট আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে নেতারা এসব কথা বলেন।

সমাবেশে বাম নেতারা বলেন, এর আগে রামু, নাসিরনগরসহ বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলার যত ঘটনা ঘটেছে তার কোনোটারই সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার হয়নি। এ কারণে সুনামগঞ্জের শাল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। সরকার সাম্প্রদায়িক শক্তিকে রক্ষা করছে বলেই সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন

শাল্লার ঘটনায় অবিলম্বে হামলাকারী ও মদদদাতাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বাম নেতারা বলেন, একই সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

বিক্ষোভ সমাবেশ সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন। সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদের (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা জহিরুল ইসলাম, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ নেতা জুলফিকার ইসলাম, গণসংহতি আন্দোলনের নেতা বাচ্চু ভূঁইয়া প্রমুখ।

সমাবেশে শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি পুরানা পল্টনে এসে শেষ হয়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন