মহান মে দিবস উপলক্ষে জাসদের সহযোগী শ্রমিক সংগঠন জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশ ও লাল পতাকা মিছিলে এসব কথা বলেন ইনু। বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে জাসদ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ সমাবেশ হয়। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার।

হাসানুল হক ইনু বলেন, সরকার বারবার তাগিদ দেয়ার পরও কিছু কিছু মালিক তাঁদের কলকারখানা, মিল, ফ্যাক্টরিতে কর্মপরিবেশ নিরাপদ না করে মৃত্যুফাঁদ বানিয়ে রেখেছেন। তিনি নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করা এবং কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় নিহত ও পঙ্গু শ্রমিকদের তাঁদের আজীবন আয়ের সমান মজুরি ক্ষতিপূরণ হিসেবে প্রদানের দাবি জানান। তিনি সমকাজে নারী-পুরুষ শ্রমিকের সমমজুরি এবং কর্মক্ষেত্রে নারী শ্রমিকদের যৌন হয়রানি বন্ধের দাবি জানান।

গৃহকর্মী, চাতালের শ্রমিক, ইটভাটার শ্রমিকসহ অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে শ্রমিকদের শ্রমিক হিসেবে আইনি মর্যাদা প্রদানের দাবি জানান ইনু। তিনি বলেন, শ্রমিক, কর্মচারী, শ্রমজীবী, কর্মজীবী, মেহনতি মানুষের প্রতিনিধিত্বকারী দল জাসদ। শ্রমিক, কর্মচারী, শ্রমজীবী, কর্মজীবী মেহনতি মানুষে কণ্ঠস্বর জাসদ।

জাতীয় শ্রমিক জোট বাংলাদেশের সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশার অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য দেন শ্রমিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নইমুল আহসান, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি নুরুল আকতার, বীর মুক্তিযোদ্ধা শফি উদ্দিন মোল্লা, শ্রমিক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরদার খোরশেদ প্রমুখ।
সমাবেশ শেষে কয়েক শ শ্রমিক বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, তোপখানা, পল্টন, প্রেসক্লাব এলাকায় লাল পতাকা মিছিল করেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন