default-image

স্বতন্ত্র কলেজ ভবন নির্মাণসহ সাত দফা দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে স্নাতক কোর্সের ফিজিওথেরাপির শিক্ষার্থীরা। বুধবার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের শ্যামলীর মিরপুর সড়ক অবরোধ করে তাঁরা বিক্ষোভ করেন। এর ঘণ্টাখানেক আগে তারা একই দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্মারকলিপি দেন।

শেরেবাংলা নগর থানা-পুলিশ জানায়, জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (পঙ্গু হাসপাতাল) অস্থায়ী ক্যাম্পাস থেকে বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি স্টুডেন্টস ইউনিয়নের (বাপসু) ব্যানারে এই কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়। স্নাতক কোর্সের ফিজিওথেরাপি শিক্ষার্থীরা মহাখালীতে তাদের বরাদ্দ করা জমিতে স্বতন্ত্র ফিজিওথেরাপি কলেজ নির্মাণসহ সাত দফা দাবি বাস্তবায়নের  দাবি জানান। বিক্ষোভের সময় তারা শ্যামলীর মিরপুর রোড অবরোধ করেন। এতে সড়কের দুদিকে সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ তাদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়।

বিজ্ঞাপন

এর আগে বাপসু সাত দফা দাবি নিয়ে পঙ্গু হাসপাতাল থেকে স্মারকলিপি দিতে তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অভিমুখে রওনা হন। একপর্যায়ে পুলিশ আগারগাঁওয়ে তাদের আটকে দেয়। এ সময় পুলিশ বাপসুর দুই-তিনজন প্রতিনিধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তাদের সাত দফা দাবি সংবলিত স্মারকলিপি পৌঁছে দেয়।

বাপসুর আহ্বায়ক নুজাইম খান প্রথম আলোকে বলেন, সাত দফা পূরণ না হলে তারা লাগাতার কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবেন। তাঁদের দাবির মধ্যে আছে ভবন নির্মাণ সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত¯স্নাতক কোর্সের শিক্ষার্থীদের জন্য অস্থায়ী ক্যাম্পাসে কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করতে হবে (এখন পঙ্গু হাসপাতালে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে)। সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষানবিশ ফিজিওথেরাপিস্টদের জন্য মাসিক ইন্টার্ন ভাতা দিতে হবে। সরকারি হাসপাতাল-স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে ফিজিওথেরাপিস্টদের প্রথম শ্রেণির পদ সৃষ্টি ও নিয়োগ দিতে হবে। ফিজিওথেরাপি ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার ন্যূনতম যোগ্যতা জিপিএ-৯ নির্ধারণ করারও দাবি জানানো হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম মুনশী প্রথম আলোকে বলেন, শিক্ষার্থীরা স্থায়ী ক্যাম্পাসের দাবিতে রাস্তায় নামলেও তাদের বুঝিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়। তবে তারা কোনো অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটায়নি।

মন্তব্য পড়ুন 0