বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আবু তাহেরকে নিয়ে এই মামলায় মোট ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হলো। এ ছাড়া দুই আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। এই মামলার আসামি সাবেক সাংসদ এম এ আউয়াল কারাগারে আছেন।

ডিএমপির মিরপুর গোয়েন্দা বিভাগের উপকমিশনার মানস কুমার পোদ্দার প্রথম আলোকে বলেন, সাহিনুদ্দিন হত্যা মামলার আসামি আবু তাহেরকে আজ আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে তিনি যেসব তথ্য দিচ্ছেন, তা যাচাই–বাছাই করা হচ্ছে। হত্যাকাণ্ডে তাঁর ভূমিকার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সাহিনুদ্দিনকে ১৬ মে তাঁর সাত বছর বয়সী ছেলের সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। র‍্যাব বলছে, হত্যাকারীদের একজন ঘটনার পর সাবেক সাংসদ আউয়ালকে ফোন করে বলেছিলেন, ‘স্যার, ফিনিশ’। এরপর আউয়ালকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। পল্লবীর আলীনগরে নিজের প্রতিষ্ঠানের আবাসন প্রকল্পের জমি দখল নির্বিঘ্ন রাখতেই আউয়াল সহযোগীদের দিয়ে সাহিনুদ্দিনকে হত্যা করান বলে অভিযোগ ওঠে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন