বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, হামলার আগে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাঁদের বিরুদ্ধে রাস্তার পাশে থাকা একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুরের অভিযোগ তুলে তর্ক বাধান৷ কথা-কাটাকাটির মধ্যেই লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁদের ওপর হামলা করা হয়৷ কিছু শিক্ষার্থী এই হামলার শিকার হন৷

প্রত্যক্ষদর্শী ও হামলার শিকার শিক্ষার্থীরা প্রথম আলোর কাছে অভিযোগ করে বলেন, কর্মসূচির শেষ পর্যায়ে সায়েন্স ল্যাব থেকে নিউমার্কেটের মোড় ঘুরে আবার সায়েন্স ল্যাব পর্যন্ত একটি মিছিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা৷ ওই মিছিলে ঢাকা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা মোটরসাইকেল ভাঙচুরের অভিযোগ তুলে হামলা চালান৷

শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রথম দফায় হামলার পর সায়েন্স ল্যাব মোড়ে গিয়ে শিক্ষার্থীরা জড়ো হলে তাঁদের ওপর আরেক দফা হামলা করে ছাত্রলীগ৷ এই হামলার সময় রাস্তায় স্কুল-কলেজের পোশাক পরা সব শিক্ষার্থীকেই মারধর করা হয়৷ হামলার পর 'জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু' স্লোগান দিতে দিতে তাঁরা ঢাকা কলেজের ভেতরে চলে যান৷

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) নিউমার্কেট জোনের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) শাহেন শাহ মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঢাকা কলেজের এক ছাত্রের মোটরসাইকেল ভাঙচুরকে কেন্দ্র করে সায়েন্স ল্যাব মোড়ে একটি বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়৷ আমরা দুই পক্ষকেই শান্ত করে নিজ নিজ কলেজে পাঠিয়ে দিয়েছি৷ এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে৷’

ঢাকা কলেজে ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই৷ হামলার অভিযোগের বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করেও সাড়া পাওয়া যায়নি৷

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন