default-image

রাজধানীর সূত্রাপুরে কিশোর দলের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে অনন্ত নামের এক কিশোর নিহত হয়েছে। ১৪ বছরের অনন্তের শরীরে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন আছে। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত আরও দুজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তারা হলো সাজু ও সোহেল।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ খান জানান, দুটি কিশোর গ্যাংয়ের বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। এ ঘটনায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাজু জানায়, স্থানীয় মিল ব্যারাক এলাকার দুজন চিহ্নিত সন্ত্রাসীর আশ্রয়ে একটি দল সক্রিয় রয়েছে। কয়েক দিন আগে এই দলের সঙ্গে অনন্ত ও তার বন্ধুদের ঝগড়া হয়। গতকাল রাত সাড়ে ১০টার দিকে মিল ব্যারাক লালকুঠি ঘাটে দুটি দলের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। অনন্তের পেটে একাধিক ছুরিকাঘাত করে বিরোধী পক্ষ। এতে সে জ্ঞান হারায়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অনন্ত স্থানীয় জুবলী স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল। দুই ভাইয়ের মধ্যে অনন্ত ছোট। পরিবারের সঙ্গে মিল ব্যারাকে কাজীটোলায় থাকত সে। অনন্তর বাবা বাংলাবাজারের একটি দোকানের কর্মী।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন