ওই শিক্ষার্থী অভিযোগ করেন, পরীক্ষায় পাস না করিয়ে একই শিক্ষাবর্ষে অনেক বছর রাখার হুমকি দিয়ে ওই শিক্ষক তাঁকে মেসেঞ্জারে খারাপ প্রস্তাব দেন। প্রাইভেট পড়ার জন্য তাঁকে বাসায় যেতে বলেন। কিন্তু বাসায় যেতে তিনি রাজি হননি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছেন। তাঁর অভিযোগ, গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষক তাঁকে খারাপ প্রস্তাব দিয়ে আসছেন। এতে তাঁর পড়াশোনা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

অভিযোগ প্রসঙ্গে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক প্রথম আলোকে বলেন, ‘পরীক্ষায় ফেল করার কারণে তিনি এ অভিযোগ করে থাকতে পারেন। কলেজের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আমাকে কথা বলতে নিষেধ করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ মো. আকতারুজ্জামান ইলিয়াস রোববার প্রথম আলোকে বলেন, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে দেখার অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশনা পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন