আজ সকাল ১০টার দিকে লিমন কুমার রায় সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের ওপর থেকে পড়ে যান বলে জানান জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ মিহির লাল সাহা। তিনি বলেন, শব্দ পেয়ে হলের শিক্ষার্থীরা তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে লিমন কীভাবে ছাদ থেকে পড়ে গেলেন, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তাঁর মৃত্যুতে জগন্নাথ হল পরিবার গভীরভাবে শোকাহত।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের দশম তলার ছাদ থেকে পড়ে গুরুতর আহত লিমন কুমার রায় নামের একজন ছাত্রকে সকালে ঢাকা মেডিকেলে আনা হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি কীভাবে ছাদ থেকে পড়ে মারা যান, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। লিমন কুমার রায়ের মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

লিমন কুমার রায়ের জগন্নাথ হলের এক সহপাঠী জানান, লিমন সব সময় সবার সঙ্গে হাসিমুখে কথা বলতেন। সব সময় মানুষের মঙ্গলের কথা চিন্তা করতেন। করোনাকালে লকডাউনের সময় গ্রামের বাড়িতে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য তিনি একটি পাঠশালা গড়ে তুলেছিলেন, যেখানে তিনি বিনা পারিশ্রমিকে পড়াতেন।