সেন্টু মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ‘দোকানের ভাড়া ও খাজনা বৃদ্ধির প্রতিবাদ করায় ব্যবসায়ী দস্তগীরকে মারধর করা হয়েছে বলে মামলা অভিযোগ করা হয়েছে।’

মামলায় পপি ছাড়াও আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। তাঁরা হলেন—লোকমান হোসেন ফকির, মজিবুল হক, আ. ফ. ম ইফতেখার রহমান, মোতাহার হোসেন, আদম আলী, সাইদ আবদুস সানী, মিজানুর রহমান, ইব্রাহিম, ফয়সাল ও সেজাত।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত ২২ জুন আমিনবাগ কো-অপারেটিভ মার্কেট সোসাইটি লিমিটেডের বাৎসরিক সাধারণ সভায় দোকানভাড়া ও খাজনা বাড়ানোর প্রতিবাদ করেন দস্তগীর। আরও কিছু বিষয়ে তিনি প্রতিবাদ জানান। প্রতিবাদ জানানোর পরপরই দস্তগীরের ওপর ক্ষিপ্ত হন পপি। তিনি মেরে ফেলারও হুমকি দেন।

দস্তগীরের অভিযোগ, ২২ জুলাই রাতে রাজধানীর শান্তিনগর বাজার সুপার মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় তাঁকে মারধর করেন আসামিরা।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সূত্র জানায়, পপির বিরুদ্ধে আগে থেকে বিভিন্ন অভিযোগ আছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন