গ্রেপ্তার চার ব্যক্তি হলেন জিয়াও উন (৪২), লিউ জিয়ানউ (৪৩), ইয়ান লিউ জুন (৩৯) ও লি মিন (৩২)। তাঁরা বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্যবসায় যুক্ত। মামলার বাদী লি ওয়েন জিং নামে চীনের এক নাগরিক। তাঁর স্বামীর নাম শাহ জাহাঙ্গীর আলম। উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ৮ নম্বর সড়কে একটি রেস্তোরাঁ চালান তিনি।

উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন প্রথম আলোকে বলেন, মারধরের পর টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার মামলার বাদী চীনা নাগরিক লি ওয়েন জিং। তাঁর সঙ্গে চেন ইয়াং নামে একজনের কথা হয়। বাংলাদেশে অর্থ পরিশোধ করলে লি ওয়েন জিংকে চীন থেকে পণ্য এনে দিতে পারবেন বলে জানান চেন। আলোচনার পর ৫০ লাখ টাকা নিয়ে বুধবার রাতে রেস্তোরাঁয় অপেক্ষা করছিলেন লি। কিন্তু চেন আসেননি। তবে তাঁর প্রতিনিধির পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি কয়েকজন চীনা নাগরিককে নিয়ে রেস্তোরাঁয় আসেন। সন্দেহ হওয়ায় লি টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে মারধর করে ৫০ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেন তাঁরা।

ওসি মহসীন বলেন, এ ঘটনায় লি মামলা করেন। এরপর চারজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। তাঁদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত।