এর আগে গত ২২ জুন অনুষ্ঠিত বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২৩তম সভার সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়া ঢাকা নগর পরিবহনের ২১ নম্বর রুটে চলাচলকারী সব অবৈধ ও রুট পারমিটবিহীন বাসের বিরুদ্ধে রোববার থেকে দুই সপ্তাহব্যাপী এ যৌথ অভিযানের ঘোষণা ছিল। ২৮ জুলাই পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। রোববারের অভিযানে ১৩টি বাস ডাম্পিং করার পাশাপাশি ২৪টি মামলায় ৫৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

দক্ষিণ সিটির অধিভুক্ত শ্যামপুরের রায়েরবাগ এলাকায় দক্ষিণ সিটির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশেকুল হক ও বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জুবের আলম; রমনায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট এলাকায় দক্ষিণ সিটির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফিফা খান ও বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিকাশ চন্দ্র বর্মণ এবং উত্তর সিটি করপোরেশনের অধিভুক্ত বছিলা এলাকায় বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফিরোজা পারভীন এসব অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযান প্রসঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফিরোজা পারভীন বলেন, ‘বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুসারে ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত ঢাকা নগর পরিবহন ছাড়া অন্য কোনো গাড়ি চলবে না। অথচ রুট পারমিট ছাড়াই গাড়িগুলো এই রুটে চলছে। সে জন্য আজকের অভিযানে তিনটি বাস ডাম্পিং করা হয়েছে।’

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জব্দ হওয়া বাসগুলো সই জাল করা রুট পারমিটের নথি দিয়ে রাজধানীর সড়কে চলাচল করছিল। এসব বাসের মধ্যে সময় ও সুগন্ধা পরিবহনের নামে দুটি প্রতিষ্ঠানের তিনটি করে বাস; মেঘলা পরিবহনের দুটি এবং মদিনার পথে, অভিনন্দন পরিবহন, মিডলাইন পরিবহন, মালঞ্চ পরিবহন ও শতাব্দী পরিবহনের একটি করে বাস ডাম্পিং করা হয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন