শাহ আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, দুর্ঘটনায় আহত জুবায়েরকে উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও বলেন, দুর্ঘটনায় হতাহতরা সবাই লেগুনার যাত্রী ও রিকশাচালক বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন। লেগুনাটি দিয়াবাড়ি থেকে মিরপুরের দিকে আসছিল। আর বাসটি মিরপুর থেকে উত্তরার দিকে যাচ্ছিল।

শাহ আলী থানা-পুলিশ সূত্র জানায়, নিহত রিকশাচালক রুবেলের বাড়ি কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে। তাঁর বাবার নাম শাহজাহান মণ্ডল। তিনি মিরপুরে থেকে রিকশা চালাতেন। দুর্ঘটনার পর বাস ও লেগুনাটি জব্দ করা হয়েছে। তবে বাসের চালক ও তাঁর সহকারী পলাতক। লেগুনার চালকেরও কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে কেউ লেগুনার চালক কি না, তা নিশ্চিত নয় পুলিশ।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, রুবেলের মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে মিলন গাজী ঢামেকে চিকিৎসাধীন।

অপর দিকে আহত অন্যরা শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতাল) চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে হাসপাতাল ও পুলিশ সূত্র জানিয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন