গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। গতকাল রাতে আরমানুজ্জামান জিসান (১৮) নামের ওই ছাত্রকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। তিনি ঢাকার উদয়ন স্কুল অ্যান্ড কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

পরিবার বলেছে, আরমানুজ্জামান নানা–নানির সঙ্গে বংশালের রজনী ঘোষ লেনের সাততলা ভবনের পাঁচতলায় থাকতেন। তাঁর বাবার নাম আনোয়ার হোসেন। বাড়ি যশোরে।

পুলিশ বলছে, আজ শুক্রবার আরমানুজ্জামানের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। বংশাল থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) শেখ ফিরোজ আলম প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল বিকেলে ছাদের রেলিংয়ে বসে মুঠোফোনে কথা বলছিলেন আরমানুজ্জামান। হঠাৎ তিনি নিচে পড়ে গুরুতর আহত হন। প্রথমে তাঁকে উদ্ধার করে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে আগারগাঁওয়ে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে নেওয়া হয়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন