শুক্রবার সন্ধ্যায় কায়ায় শুরু হয়েছে সরকার হেলাল উদ্দিনের একক চিত্র প্রদর্শনী ‘জলরঙ’। প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন খ্যাতিমান চিত্রকর আবদুস শাকুর শাহ। অনুষ্ঠানে গান গেয়ে শোনান শিল্পী কনক আদিত্য। আবদুস শাকুর শাহ বলেন, ‘জলরঙে সবাই কাজ করতে পারে না। ভালো ড্রইং করে এমন অনেকেই এই মাধ্যমে কাজ এগিয়ে নিতে পারেনি। হেলালকে দেখেছি, সে লেগে আছে। তার কাজ মানুষের ভালো লাগবে।’

কানাডা প্রবাসী শিল্পী সরকার হেলাল উদ্দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় পড়া শুরু করে শেষ করেছেন চীনে। দীর্ঘ দিন প্রবাসে চিত্রকর্মের চর্চা করে যাচ্ছেন। তিনি জানালেন, অন্য একটি পেশায় নিয়জিত থাকলেও নিয়মিত আঁকতে বসতে হয় তাঁকে। তিনি বলেন, ‘আমি অন্য মাধ্যমে কাজ করতে পারি। কিন্তু জলরঙ আমার বেশি পছন্দ। কারণ এই মাধ্যমে ছবি খুব দ্রুত শেষ করা যায়।’

প্রদর্শনী উদ্বোধনের পরই ভিন্ন অঙ্গনের শিল্পীদের উপস্থিতিতে বর্ণিল হয়ে ওঠে গ্যালারি চত্বর। তাঁরা আড্ডা দিয়েছেন আর ঘুরে ঘুরে দেখেছেন গ্যালারি। কানাডার তুষার, টরোন্টো শহর, ট্রাম, ফুল, পাখি, বন্ধুর মুখচ্ছবি এঁকেছেন হেলাল উদ্দিন। প্রায় সবগুলো ফ্রেম ধরে রেখেছে ভিনদেশের সব দৃশ্য। শিল্পী জানালেন, এ সবই তাঁর আবাসস্থলের আশপাশে দেখা দৃশ্য। চিত্রকর্মে বিদেশের দৃশ্য প্রসঙ্গে গ্যালারি কায়ার কর্ণধার চিত্রকর গৌতম চক্রবর্তী বলেন, ‘আমাদের সুন্দরবন, পার্বত্য অঞ্চল, পুরান ঢাকার চিত্র আমরা নিউইয়র্ক, সিডনিতে তুলে ধরি। শিল্পী কী আঁকবেন সেই স্বাধীনতা তাঁকে দিতে হবে আর এগুলোকে ছবি হিসেবেই মর্যাদা দিতে হবে। শিল্পরসিককে দেখতে হবে সেটা রসোত্তীর্ণ হলো কি না।’

default-image

সরকার হেলাল উদ্দিনের ৫৫টি চিত্রকর্ম নিয়ে জলরঙের এ প্রদর্শনী চলবে ২ আগস্ট পর্যন্ত। শিল্পরসিকদের জন্য প্রতিদিন বেলা সাড়ে ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত গ্যালারি খোলা থাকবে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন