অতীতের বাজেট পর্যালোচনা করে মেয়র বলেন, ‘যখন এই করপোরেশন সভায় প্রথম বাজেট উপস্থাপন করি, সেই বাজেটে রাজস্ব আদায় ছিল মাত্র ৫১৪ কোটি টাকা। কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিরলস পরিশ্রম, সুষ্ঠু কর্মপরিকল্পনা ও ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে দুর্নীতিবিরোধী কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করায় ঢাকাবাসীর আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছি। ফলে করোনা মহামারির মধ্যেও গত বছর ৭০৩ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। আর এই অর্থবছরে গতবারের চেয়ে ১৭৬ কোটি টাকা বেশি রাজস্ব আদায় করে আগের রেকর্ডও ভঙ্গ করেছি।’

বাজেট সভায় একজন কর্মকর্তাকে ‘শুদ্ধাচার পুরস্কার’ এবং একজন কাউন্সিলরকে ‘শ্রেষ্ঠ কাউন্সিলর’ হিসেবে পুরস্কৃত করা হয়। শুদ্ধাচার পুরস্কার পান করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন। ঢাকা দক্ষিণ সিটির ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং করপোরেশনের অর্থ ও সংস্থাপন কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সেলিমকে শ্রেষ্ঠ কাউন্সিলরের পুরস্কার দেওয়া হয়।

শুদ্ধাচার পুরস্কার হিসেবে প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তাকে এক মাসের মূল বেতন এবং শ্রেষ্ঠ কাউন্সিলরকে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এ ছাড়া দুজনকেই স্মারক ও সনদ দেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে দক্ষিণ সিটির সচিব আকরামুজ্জামানের সঞ্চালনায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদসহ কর্মকর্তা, কাউন্সিলররা বক্তব্য দেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন