এর আগে গত সেপ্টেম্বরে এক দফা সংযোগ বিচ্ছিন্নের কাজ শুরু হয়। তবে এবার তা আরও জোরেশোরে চলবে বলে দাবি করেছেন তিতাসের ঢাকা মেট্রোর রাজস্ব বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. রশিদুল আলম।

তিনি আজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা সেপ্টেম্বের এ কাজ শুরু করেছিলাম। পরে ৭ ও ৮ নভেম্বর রাজধানীর সোবহানবাগ এলাকায় অন্তত ২০০টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছি আমরা। আজ তিতাসের ৩০টি টিম রাজধানীর কুড়িল-বাড্ডা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করছে।’

রশিদুল আলম বলেন, বারবার নোটিশ দেওয়া সত্ত্বেও বকেয়া বিল পরিশোধে নারাজ গ্রাহকদের গ্যাস–সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হচ্ছে। এর মধ্যে বাসাবাড়ি ও শিল্পপ্রতিষ্ঠানও আছে বলে জানান তিনি।
আজ সকাল থেকে বাড্ডা, কুড়িল, দক্ষিণখান, উত্তরখান, উত্তরা ও গুলশানের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

রাজধানীতে এমন বকেয়া গ্রাহকের সংখ্যা কত, তার সঠিক সংখ্যা জানাতে পারেননি রশিদুল আলম। তিনি বলেন, ‘বারবার নোটিশ দেওয়া সত্ত্বেও যেখানে বকেয়া বিল দেওয়া হয়নি, সেসব সংযোগই আমরা বিচ্ছিন্ন করছি।’

আগামী সপ্তাহে মিরপুরে বিল–খেলাপিদের গ্যাস–সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে বলে জানান রশিদুল আলম। তিনি বলেন, ‘আমরা ধারাবাহিকভাবে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করব।’