মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ প্রথম আলোকে বলেন, নির্মাণাধীন ১১ তলা ভবনের ৭ তলায় মাচা বেঁধে প্লাস্টার করছিলেন শ্রমিকেরা। এ সময় রশি ছিঁড়ে নিচে পড়ে মারা যান দুই শ্রমিক। এ ঘটনায় ভবনমালিকের বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে মামলা করা হবে।

নিহত দুই শ্রমিকের বাড়ি রাজশাহীর গোদাগাড়ি এলাকায়। নির্মাণাধীন ভবনটিতে থেকে কাজ করতেন তাঁরা। মামুনের মরদেহ শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। আর সেন্টুর মরদেহ আছে ধানমন্ডির একটি হাসপাতালে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন