বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহীনুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, ‘বাসায় বসে টিকা নেওয়ার ঘটনায় মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়েছি। এরপর রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দুজনকে আটক করা হয়। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। হাসানের বাসা জাকির হোসেন রোডে। তিনি সেখানে বসে টিকা গ্রহণ করেন।’

গত শনিবার দেশব্যাপী সম্প্রসারিত টিকাদানের সময় হাসান বাসায় বসে টিকা নেন। এরপর নিজের ফেসবুক ওয়ালে টিকা নেওয়ার ছবি আপলোড করেন। এ ছবিতে তিনি কয়েকজনকে ট্যাগ দেন। এর মধ্যে মোবারক একজন। এ ছাড়া টিকার জন্য মোবারককে ধন্যবাদ জানান হাসান।

ওসি শাহীনুজ্জামান বলেন, হাসান ব্যবসায়ী। তাঁর বন্ধু সাজ্জাদও একইভাবে বাসায় টিকা নিয়েছেন। হাসান, মোবারক ও সাজ্জাদ— তিনজনের বাসা জাকির হোসেন রোডে।

ঘটনাটি নজরে আসার পর সিভিল সার্জন ও সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করেন শুলকবহর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোরশেদুল আলম। এরপর বিষয়টি পুলিশকেও জানানো হয়।

সূত্র বলেছে, এভাবে আরও কয়েকজন বাসায় টিকা নিয়েছেন।

এ বিষয়ে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, কে টিকা দিলেন, কে নিলেন, এর পেছনে কারা রয়েছেন—সবাইকে খুঁজে বের করা হবে। এর সঙ্গে জড়িত স্বাস্থ্যকর্মীকেও খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনা হবে। এভাবে বাসায় বসে টিকা নেওয়া ও দেওয়া অপরাধ।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন