default-image

বাংলাদেশকে দেওয়া চীনের উপহারের পাঁচ লাখ টিকা ১২ মে আসছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন প্রথম আলোকে মুঠোফোনে এ তথ্য জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ইতিমধ্যে চীন আমাদের পাঁচ লাখ টিকা উপহার হিসেবে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। উপহারের সেই টিকা ১২ মে তারা আমাদের পাঠাবে বলে জানিয়েছে।’

দেশটির কাছ থেকে উপহারের টিকার পাশাপাশি বাণিজ্যিকভাবে টিকা সংগ্রহরে চেষ্টাও চালাচ্ছে বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

চীনের কাছ থেকে টিকা কেনার অগ্রগতির বিষয়ে জানতে চাইলে এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, টিকা কেনাকাটার বিষয়টি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দেখাশোনা করছে। এ জন্য মন্ত্রণালয়ে একটি কমিটিও আছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে বেইজিংয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে কেনাকাটা বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছে।

ভারত থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা তৈরি হওয়ার পরই মূলত সরকার চীন থেকে টিকা পাওয়ার চেষ্টা শুরু করেছিল।

এদিকে রাশিয়ার টিকা স্পুতনিক-ভি টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদনও দেওয়া হয়েছে। সরকারি নথি অনুসারে, কিনতে চাইলে রাশিয়া বাংলাদেশকে মে মাস থেকেই টিকা দিতে পারবে।

স্পুতনিক-ভি টিকাসহ বাংলাদেশে অনুমোদন পাওয়া টিকার সংখ্যা তিনটি।

বিজ্ঞাপন
করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন