বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর জন্য কোভ্যাক্সের ২০ শতাংশ বরাদ্দ অনুযায়ী বাংলাদেশের ৬ কোটি টিকা বিনা মূল্যে পাওয়ার কথা। এর মধ্যে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ ১ কোটি ২৫ লাখ টিকা পেয়েছে।

কোভ্যাক্স বিনা মূল্যে টিকা দেওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন দেশকে বাণিজ্যিকভাবে টিকা কিনতে সমন্বয়কারীর ভূমিকাও পালন করছে। এ বৈশ্বিক উদ্যোগের মাধ্যমে ১০ কোটি ৪০ লাখ টিকা কেনা হলে সব মিলিয়ে একই উৎস থেকে বাংলাদেশ সাড়ে ১৬ কোটি টিকা পাবে।

দেশের জনসংখ্যার ৮০ শতাংশকে টিকা দিতে হলে ১৩ কোটি মানুষের জন্য ২ ডোজ করে ২৬ কোটি টিকা লাগবে। এর মধ্যে কোভ্যাক্সের কাছ থেকে কেনা ও বিনা মূল্যে পাওয়া যাচ্ছে সাড়ে ১৬ কোটি টিকা। অবশিষ্ট সাড়ে ৯ কোটি টিকার মধ্যে চীনের সিনোফার্ম থেকে সাড়ে ৭ কোটি টিকা কেনার চুক্তি হয়েছে। আর চুক্তি অনুযায়ী ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কেনা ৩ কোটি টিকার মধ্যে বাংলাদেশের পাওনা রয়েছে ২ কোটি ৩০ লাখ টিকা। এসব টিকার বাইরে ভারত ও চীনের কাছ থেকে বাংলাদেশ উপহার হিসেবে ৭০ লাখ টিকা পেয়েছে, অর্থাৎ সব মিলিয়ে বাংলাদেশের যে টিকার প্রয়োজন, তার চেয়ে বাড়তি ১ কোটি টিকা নিশ্চিত করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন