চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ২৭ হাজার ৯৪৭ জন। মোট মারা গেছেন ১ হাজার ৩৬৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৩৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। শনাক্ত ব্যক্তিদের ৪৬ জন নগরের, ১৩ জন উপজেলার বাসিন্দা।

আগের ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৪১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ৭৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ছিল ১৮।

চট্টগ্রামে ২০২০ সালের ৩ এপ্রিল প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। একই বছরের ৯ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে প্রথম কারও মৃত্যু হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১ হাজার ৩২৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৮৯ শতাংশ। একই সময়ে করোনায় মারা গেছে ছয়জন।

করোনার সংক্রমণ রোধে ১৯ জুলাই দেশব্যাপী বুস্টার ডোজ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বুস্টার ডোজের এই কার্যক্রম এক দিন পরিচালনা করা হবে। এদিন সকাল ৯টা থেকে টিকা দেওয়া শুরু হবে। ১৮ বছরের বেশি যে কারও দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার চার মাস পূর্ণ হলে ১৯ জুলাই বুস্টার ডোজ গ্রহণ করতে পারবেন।

বুস্টার ডোজ নেওয়ার জন্য উপযুক্ত প্রমাণ দেখাতে হবে। অর্থাৎ, কোভিড-১৯ টিকার কার্ড বা সনদ দেখাতে হবে।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন